কাকে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলা হয়?

Who is called the knowledge guru of Europe ইউরোপ মহাদেশ সম্পর্কে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের তথ্য শেয়ার করেছি। তবে আজকে আমি নতুন একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো। সেটি হলো, কাকে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলা হয়। যদিওবা এই বিষয়ে অনলাইনে তেমন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। 

কিন্তুু তারপরও এই বিষয়টি সম্পর্কে আমি বিভিন্ন সোর্স থেকে যেসব তথ্য জেনেছি। সেই তথ্য গুলো এবার আমি আপনার সাথে শেয়ার করবো। 

আরো পড়ুনঃ ইউরোপ মহাদেশ কয়টি দেশ আছে | ইউরোপ মহাদেশের দেশ কয়টি ও কি কি?

কাকে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলা হয়?

আপনারা অনেকেই জানতে চান যে, ইউরোপের জ্ঞান গুরু কাকে বলা হয়। তো এই প্রশ্নের উত্তর হলো, গ্রিস কে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলা হয়। তবে গ্রিসকে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলার পেছনে বেশ কিছু কারন আছে। তার মধ্যে অন্যতম হলো, গ্রিসের প্রাচীন সভ্যতা জ্ঞান ও বিজ্ঞানে অনেক বেশি অবদান রেখেছে।

যার কারণে ইউরোপের জ্ঞান বিজ্ঞানের ভিত্তি হিসেবে গ্রিসের দার্শনিক, বিজ্ঞানী ও সাহিত্যিকদের অবদান অপরিসীম। তবে গ্রিসের প্রাচীন দার্শনিকদের মধ্যে অন্যতম হলো সক্রেটিস, প্লেটো ও অ্যারিস্টটল। বলে রাখা ভালো যে, অ্যারিস্টটল হলো এমন এক ধরনের দার্শনিক যাকে “পশ্চিমা দর্শনের জনক” বলা হরুন

এছাড়াও প্রাচীন বিজ্ঞানের মধ্যে অন্যতম হলো আর্কিমিডিস, ইউক্লিড, তোলেমি। আর প্রাচীন সাহিত্যিক এর মধ্যে অন্যতম হলো, হোমার, সফোক্লেস, ইউরিপিডস। তো এইসব অবদানের কারণে প্রাচীন গ্রিসকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। আর যার কারণে গ্রিসকে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলা হয়।

আরো পড়ুনঃ ইউরোপ মহাদেশের দেশ গুলোর নাম ও রাজধানী ও মুদ্রা

ইউরোপ মহাদেশের বৃহত্তম দেশের নাম কি?

এতক্ষনের আলোচনা থেকে আমরা জানলাম, কাকে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলা হয়। তো এবার আমাদের আরো একটি বিষয় জেনে নিতে হবে। সেটি হলো, ইউরোপ মহাদেশের বৃহত্তম দেশের নাম কি। 

তো আপনি যদি ইউরোপের বৃহত্তম দেশের নাম জানতে চান। তাহলে সবার আগে যে নামটি জানতে পারবেন সেটি হলো রাশিয়া। কেননা, ইউরোপ মহাদেশের প্রায় ৪০ শতাংশ অংশ জুড়ে রয়েছে রাশিয়া। আর ইউরোপ মহাদেশ এর মধ্যে বৃহত্তম আয়তনের পাশাপাশি এই দেশটি জনসংখ্যার দিক থেকে বৃহত্তম স্থান দখল করে আছে। 

ইউরোপ কিভাবে এত ধনী হয়েছে?

একটা বিষয় আমরা সকলেই বেশ ভালো করে জানি। সেটি হলো, ইউরোপ মধ্যে অধিকাংশ দেশ ধনী দেশের তালিকায় আছে। কিন্তুু আপনি কি জানেন, ইউরোপ কিভাবে এত ধনী হয়েছে? -যদি আপনি এই বিষয়টি সম্পর্কে না জেনে থাকেন তাহলে শুনুন… ইউরোপ এতো বেশি ধনী হওয়ার পেছনে বেশ কিছু কারন আছে। যেমন, 

ইউরোপের ইতিহাসকে একটি সমৃদ্ধ ইতিহাস হিসেবে ধরা হয়। কেননা, প্রাচীন ইতিহাসে ইউরোপ এর মধ্যে অনেক যুদ্ধ বিগ্রহ হয়েছে, বিভিন্ন ধরনের সংস্কৃতির আদান প্রদান হয়েছে। এর পাশাপাশি ইউরোপ এর মধ্যে ঘটেছে নতুন প্রযুক্তির বিকাশ। যার ফলে সময়ের সাথে সাথে ইউরোপ এর মধ্যে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির বিকাশ ঘটেছে। 

তবে ইউরোপের ধনী হওয়ার পেছনে শুধুমাত্র প্রাচীন ইতিহাসের অবদান নয়। বরং ইউরোপ ধনী হওয়ার পেছনে ভৌগলিক অবস্থানও অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। কেননা, ইউরোপের মধ্যে প্রচুর পরিমান কৃষি জমি আছে। এছাড়াও ইউরোপ হলো প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ একটি ভূখন্ড। 

এগুলো ছাড়াও ইউরোপের বাণিজ্য, শিক্ষা ও প্রযুক্তির কারণে অর্থনীতি আরো সমৃদ্ধ হয়েছে। যার কারণে সময়ের সাথে ইউরোপ এতো বেশি ধনী হতে পেরেছে। 

আরো পড়ুনঃ ইউরোপ ভিসা এজেন্সি ২০২৩ 

ইউরোপের সবচেয়ে শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ কোনটি? 

আয়তন ও জনসংখ্যার দিক থেকে রাশিয়া বৃহত্তম দেশ হলেও জামার্নি হলো ইউরোপের সবচেয়ে শক্তিশালী অর্থনীতির একটি দেশ। কেননা, জার্মানি হলো একটি শিল্প উন্নত দেশ। আর এই দেশের মধ্যে রয়েছে উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থা ও উন্নত প্রযুক্তি। যেগুলো জার্মানির অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করতে সহায়তা করেছে। আর বর্তমান সময়ে ইউরোপের মোট জিডিপির প্রায় ২২% আসে জামার্নির জিডিপি থেকে। 

আরো পড়ুনঃ কানাডার জনসংখ্যা কত কোটি?

আপনার জন্য আমাদের কিছুকথা

কাকে ইউরোপের জ্ঞান গুরু বলা হয় – এই বিষয়টি নিয়ে আজকে বিস্তারিত তথ্য শেয়ার করা হয়েছে। আশা করি, এই আর্টিকেল থেকে আপনি উক্ত বিষয়ে সঠিক তথ্য জানতে পেরেছেন। আর আমরা প্রতিনিয়ত এই ধরনের অজানা বিষয় গুলো নিয়ে আর্টিকেল পাবলিশ করি। 

যদি আপনি সেই অজানা তথ্য গুলো বিনামূল্যে জানতে চান। তাহলে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করবেন। ধন্যবাদ।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *