জমির দাগ নম্বর ম্যাপ বের করার উপায়

Ways to find the land mark number map বিভিন্ন সময় আমাদের জমির দাগ নম্বর ম্যাপ দেখার প্রয়োজন হয়। আর আপনি চাইলে অনলাইন ও অফলাইন দুইটি পদ্ধতি ফলো করে জমির দাগ নম্বর ম্যাপ বের করতে পারবেন। তবে অনলাইন থেকে জমির ম্যাপ বের করার জন্য আপনাকে যেসব নিয়ম ফলো করতে হবে। সেই নিয়ম গুলো আজকে ধাপে ধাপে দেখিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবো। 

আরো পরুনঃ জমির খাজনা দেওয়ার রশিদ বের করার উপায়  

জমির ম্যাপ বলতে কি বোঝায়?

সহজ কথায় জমির ম্যাপ হলো বিশেষ এক ধরনের ভৌগলিক মানচিত্র। যার মাধ্যমে আপনি নির্দিষ্ট কোনো একটি এলাকার মধ্যে থাকা জমির বর্তমান অবস্থান, উক্ত জমির আকার ও সীমানা সম্পর্কে জানতে পারবেন। আর জমির ম্যাপ সাধারনত বিভিন্ন ধরনের চিহ্ন ও প্রতীকের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়ে থাকে। 

আরো পরুনঃ ফিতা দিয়ে জমি মাপার নিয়ম 

জমির দাগ নম্বর বলতে কি বুঝায়?

আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা আসলে জানতে চায় যে, জমির দাগ নম্বর বলতে কি বুঝায়। তো একটি মৌজা নক্সায় প্রত্যেক টি ভূমি খন্ডকে নির্দিষ্ট ক্রমিক নম্বর দিয়ে জমি চিহ্নিত বা সনাক্ত করার জন্য নির্ধারিত নাম্বার প্রদান করা হয়। আর উক্ত নাম্বারকে বলা হয়, জমির দাগ নাম্বার।

আরো পরুনঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি দাতা কে?  

মৌজা ম্যাপ উত্তলন করার পদ্ধতি

তো আপনি আসলে যে উদ্দেশ্যে আমার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেছেন। এবার আমি আপনাকে সে সম্পর্কে বলবো। অর্থ্যাৎ এবার আমি আপনাকে মৌজা ম্যাপ উত্তলন করার পদ্ধতি গুলো সম্পর্কে বলবো। আর আপনি যদি মৌজা ম্যাপ উত্তলন করতে চান। তাহলে নিচের পদ্ধতি গুলো অনুসরন করুন। 

  1. মৌজা ম্যাপ উত্তলন করার জন্য আপনাকে এই লিংকে ক্লিক করতে হবে। 
  2. তারপর আপনি ভূমি মন্ত্রনালয় এর মূল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন।
  3. তো প্রথমে আপনাকে “বিভাগ” সিলেক্ট করতে হবে। 
  4. একই ভাবে আপনাকে জেলা ও উপজেলা সিলেক্ট করে দিতে হবে। 
  5. তারপর আপনাকে মৌজা নির্বাচন করে দিতে হবে। 
  6. এরপর সীট নির্বাচন করে দিন। 
  7. সবশেষে আপনাকে “অনুসন্ধান করুন” বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

আর যখন আপনি উপরে দেখানো পদ্ধতি গুলো সঠিক ভাবে ফলো করবেন। তারপর আপনি আপনার দেওয়া সীট অনুযায়ী ছোট মৌজা ম্যাপ দেখতে পারবেন। 

আরো পরুনঃ খতিয়ান থেকে জমির পরিমাণ বের করার নিয়ম 

এখন আপনি যদি সার্টিফাইড কপি পেতে চান তাহলে আপনাকে সার্টিফাইড কপির জন্য আবেদন করতে হবে। আর উক্ত আবেদন করার সময় আপনি কেমন ডেলিভারি পেতে চান, অফিস কাউন্টার বা ডাকযোগ সিলেক্ট করে দিতে হবে।  

আরো পরুনঃ 1 কাঠা = কত শতক জমি? 

এরপর আপনার বেশ কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য জমা দিতে হবে। যেমন, আপনার নাম, ইমেইল, ঠিকানা, এনআইডি নাম্বার, মোবাইল নাম্বার ইত্যাদি। তারপর আপনাকে মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে পেমেন্ট করে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। 

আরো পরুনঃ জমি বন্টন ক্যালকুলেটর | অ্যাপস ও ওয়েবসাইট 

দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকের নাম

অনেক সময় আমাদের জমির দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করার দরকার হয়। আর যখন আপনি অনলাইন থেকে দাগ নাম্বারের সাহায্য জমির মালিকের নাম বের করবেন। তখন আপনাকে যে যে পদ্ধতি গুলো ফলো করতে হবে সেগুলো হলো, 

  1. সবার শুরুতে আপনাকে www.eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। 
  2. তারপর আপনি একটু নিচের দিকে “নামজারি খতিয়ান” এর মধ্যে ক্লিক করুন। 
  3. এবার আপনাকে বিভাগ, জেলা, উপজেলা, সিলেক্ট করে দিতে হবে। 
  4. এরপর আপনাকে আপনার মৌজা সিলেক্ট করতে হবে। 
  5. সবশেষে আপনাকে খতিয়ান নং দিতে হবে। 

আর যখন আপনি উপরে দেখানো পদ্ধতি গুলো ফলো করবেন। তারপর আপনি কাঙ্খিত নামের যে দাগ নং, জমির পরিমান সহো যাবতীয় তথ্য গুলো দেখতে পারবেন। মূলত এই পদ্ধতির মাধ্যমে আপনি খুব সহজে দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকের নাম জানতে পারবেন। 

আরো পরুনঃ জমির পরিমাপ শতাংশ | জমির পরিমাপক 

আপনার জন্য আমাদের কিছুকথা

আজকের আর্টিকেলে আমি আপনাকে মৌজা ম্যাপ উত্তলন করার পদ্ধতি গুলো সম্পর্কে বলেছি। এছাড়াও আমি আপনাকে দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকের নাম বের করার উপায় গুলো শেয়ার করেছি। 

তো এরপরও যদি আপনার উপরোক্ত বিষয় গুলো সম্পর্কে কোনো ধরনের প্রশ্ন থাকে। তাহলে আপনার প্রশ্নটি নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন। আর এতক্ষন ধরে আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *